ছবি: সংগৃহীত




অনলাইন ডেস্কঃ সম্প্রতি ৪৮ কোটি ৭০ লাখেরও বেশি হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর চুরি করেছেন সাইবার অপরাধীরা। এসব তথ্য বিক্রির জন্য হ্যাকারদের অনলাইন ফোরামে বিজ্ঞাপনও দিয়েছেন তারা। ফলে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের তথ্যনিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে সাইবার নিউজ।

সাইবার নিউজের তথ্যমতে, ৮৪টি দেশের হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর রয়েছে সাইবার অপরাধীদের কাছে। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর সংখ্যা ২০০ কোটি। এর মধ্যে এক চতুর্থাংশ ব্যবহারকারীর হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর চুরি করেছেন সাইবার অপরাধীরা। ৮৪টা দেশের যেসব হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর সাইবার অপরাধীদের ডেটাবেজে রয়েছে, তারা তথ্য ফাঁসের ঝুঁকিতে রয়েছেন।

বিশ্বের এই বিপুল সংখ্যক সক্রিয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর কীভাবে ফাঁস হয়েছে, তা সাইবার নিউজের রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়নি। তবে রিপোর্টে বলা হয়েছে, সাইবার অপরাধীরা স্ক্র্যাপিং নামক একটি প্রক্রিয়ার সাহায্য নিয়ে পুরো ডেটাবেজ প্রকাশ্যে এনেছেন। এই পদ্ধতিতে বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে ডেটা সংগ্রহ করা হয়। অর্থাৎ, হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের এই ফোন নম্বর হাতানোর জন্য কোনো সাইবার আক্রমণ করা হয়নি।

প্রায় ৪৯ কোটি হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর সম্বলিত ডেটাবেজ হ্যাকারদের কাছে বিক্রি করে দিতে চাইছেন সাইবার অপরাধীরা। ফাঁস হওয়া ফোন নম্বর কাজে লাগিয়ে স্প্যাম মেইল পাঠানোর পাশাপাশি ফিশিং আক্রমণ চালাতে পারে হ্যাকাররা। শুধু তা–ই নয়, এর মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণও নিতে পারে। পাশাপাশি ব্যবহারকারীদের কার্যক্রমের ওপরও নজরদারি করা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Bangladeshpost24.com        

Previous articleজলপ্রপাতের কাছে গিয়ে সেলফি তোলার চেষ্টা, ৪ কিশোরীর মৃত্যু
Next articleএবার‘সেরা পুরুষ’ পুরস্কার পেলেন হিরো আলম