Home ক্রাইম যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডাকাতি, সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডাকাতি, সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

অনলাইন ডেস্কঃ টাঙ্গাইলে উত্তরবঙ্গ থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী যাত্রীবাহী বাস জিম্মি করে লুটপাট ও ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (২ আগস্ট) রাতে বাস‌টি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে যাত্রীদের অস্ত্রের ভয় দে‌খিয়ে হাত-পা, চোখ-মুখ বেঁধে, ডাকা‌তি ও ধর্ষণ করা হয়। পরে বাস‌টি জেলার মধুপুর উপজেলার রক্তিপাড়া জামে মসজিদের পাশে রেখে পালিয়ে যায় ডাকাতরা।

বাসের যাত্রীরা জানান, মঙ্গলবার গভীর রাতে সিরাজগঞ্জ পৌঁছালে সেখান থেকে কয়েকজন ডাকাত যাত্রীবেশে ওই বাসে উঠে পড়ে। এরপর বাসটি বঙ্গবন্ধু সেতু পার হওয়ার পর ডাকাতদল বাস‌টি নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়। বাসে থাকা সব যাত্রীর হাত, পা ও চোখ বেঁধে মারধর ও লুটপাট করে। এসময় বাসের ভেতরেই এক নারী যাত্রীকে ডাকাতদল ধর্ষণ করে।

মধুপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাজহারুল আমিন (বিপিএম) যাত্রীদের বরাত দিয়ে জানান, বাসটি সিরাজগঞ্জের কাছাকাছি হোটেলে রাতের খাবার খাওয়ার জন্য বিরতি দেয়। রাত দেড়টার দিকে আবার যাত্রা শুরু করে। পথে কাঁধে ব্যাগ বহন করা ১০-১২ জন তরুণ বাসে উঠে। বাসটি বঙ্গবন্ধু সেতু পার হওয়ার পর যাত্রীবেশে থাকা ওই তরুণরা অস্ত্রের মুখে একে একে সব যাত্রীকে বেঁধে ফেলে। এরপর সব যাত্রীর কাছ থেকে মোবাইল, নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নেয়। বাসে থাকা এক নারী যাত্রীকে ধর্ষণ করে তারা। পরে বাসটি বিভিন্ন স্থানে ঘুরিয়ে তিন ঘণ্টার মতো নিয়ন্ত্রণে রাখে। বাস‌টি পথ পরিবর্তন করে টাঙ্গাইল ময়মনসিংহ সড়কের মধুপুর উপজেলার রক্তিপাড়া জামে মসজিদের পাশে বালির ঢিবিতে উল্টে দিয়ে ডাকাত দল পালিয়ে যায়।

তি‌নি আরও জানান, এ ঘটনায় বাসের এক যাত্রী বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। ধর্ষণের শিকার ওই নারীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে। ঘটনার পরই জেলা পু‌লিশ সুপার ঘটনাস্থল প‌রিদর্শনসহ যাত্রী‌দের সাথে কথা বলেছেন।তিনি আরও জানান, জড়িতদের গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা চলছে।

ঈগল পরিবহনের ব্যবস্থাপক আয়নাল হোসেন জানান, বাসের চালক, হেলপার ও সুপারভাইজারদের বেঁধে রেখে যাত্রীদের কাছে যা যা ছিল সব নিয়ে গেছে ডাকাতরা।

bangladeshpost24.com

Previous articleআশুলিয়ায় নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার
Next articleবাংলাদেশকে ঋণ দিতে সম্মত আইএমএফ