Home আন্তর্জাতিক মূল্যস্ফীতির বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের ডাক ইমরানের

মূল্যস্ফীতির বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের ডাক ইমরানের

বাংলাদেশ পোষ্ট ২৪ ডটকম: রেকর্ড করা এক ভিডিও বার্তায় ইমরান খান বলেন, দেশের মানুষ যদি অলস বসে থাকে তাহলে সামনের দিনে মুদ্রাস্ফীতি আরো বাড়বে। তাই আমি সমগ্র দেশবাসী তথা ট্রেড ইউনিয়ন, পেশাজীবী, ডাক্তার, প্রকৌশলী, কেরানি এবং সরকারি কর্মীদের রাস্তায় নামার আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।

ইমরান খান বলেন, তিনি বর্তমান শাসকদের কাছে জানতে চান অর্থনীতি এবং দেশ পরিচালনায় সক্ষম না হয়েও কেন তারা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তিনি বলেন, দেশবাসী জানে বিরোধী দলে থাকাকালে বর্তমান সরকারের নেতারাও সে সময় মুদ্রাস্ফীতির সমালোচনা করত। এখন বাস্তবতা সবার সামনে।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা যখন সরকার ছেড়েছিলাম তখন পেট্রোলের দাম ছিল লিটার প্রতি ১৫০ রুপি আর আমাদের সাড়ে তিন বছরের মেয়াদে তা ৫০ রুপি বাড়ানো হয়। ইমরান খান জানান, পিটিআই সরকারের ওপরও পেট্রোলের দাম বাড়াতে চাপ প্রয়োগ করে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। আর সে কারণেই জনসাধারণের ওপর জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধির আসন্ন প্রভাব উপলব্ধি করে আমরা ভর্তুকির জন্য ২০ হাজার কোটি রুপি সংরক্ষিত রেখেছিলাম।

ইমরান খান বলেন, বর্তমান সরকার মাত্র ২০ দিনের মধ্যে পেট্রোলের দাম বাড়িয়েছে ৮৫ রুপি। আর তার নেতৃত্বাধীন পিটিআই সরকারের প্রায় চার বছরের শাসনামলে দাম বাড়ানো হয় মাত্র ৫০ রুপি। তিনি সতর্ক করেন, এই মূল্যবৃদ্ধি সামনের দিনগুলোতেও চলতে থাকবে। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ডিজেলের দাম আরো বাড়ানো হলে দেশে ‘অর্থনৈতিক বিপর্যয়’ নেমে আসবে। তিনি বলেন, তার সরকার প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম ১৬ রুপিতে রেখেছিল, নতুন সরকার এটি ৩০ রুপিতে নিয়ে গেছে।

ইমরান খান আরো বলেন, তার সরকারের আমলে ২০ কেজি গমের একটি বস্তা ১ হাজার ১০০ রুপিতে পাওয়া যেত এখন তা ১ হাজার ৫০০ রুপিতে পৌঁছেছে। একইভাবে প্রতি কেজি ঘিয়ের দাম ৪০০ রুপি থেকে বাড়িয়ে ৬৫০ রুপি করা হয়েছে।

 

bangladeshpost24.com

Previous articleতরুনদের মাধ্যমে বিশ্বের ব্লক চেইন হাব হবে বাংলাদেশেঃ পলক
Next articleশিক্ষা মন্ত্রী করোনা আক্রান্ত