অনলাইন ডেস্কঃ ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক অনেক কোম্পানির জন্য বাংলাদেশ একটি অজানা জায়গা। তারা জানে না বাংলাদেশে তাদের জন্য কী ধরনের সুবিধা রয়েছে। এটা এভাবেও দেখা যেতে পারে, বাংলাদেশের বাজারে শুরুর দিকে প্রবেশ করা কোম্পানিগুলো পরিপক্ব বিনিয়োগ গন্তব্যগুলোর তুলনায় কম প্রতিযোগিতার মুখোমুখি হবে।

গতকাল ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ফোরাম অব বাংলাদেশের (আইবিএফবি) বার্ষিক সাধারণ সভায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পিটার হাস। বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াইটলি।

পিটার হাস বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের অনেক ব্যবসায়ী এ অঞ্চলে তাদের ব্যবসা সম্প্রসারণে আগ্রহী। আর আমরা তাদের জন্য ব্যবসায়িক পরিবেশ তৈরি করতে বাংলাদেশকে সাহায্য করতে চাই। এ বছরের শেষের দিকে একটি বাংলাদেশ-ইউএস ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কো-অপারেশন ফোরামের বৈঠকের অপেক্ষায় আছি। সেখানে আমাদের অর্থনৈতিক সম্পর্ক সম্প্রসারণের সুযোগ রয়েছে।

বলেন, সম্পর্কের পরবর্তী ধাপে যাওয়ার ক্ষেত্রে দুটি বিষয়ে অবশ্যই উদ্যোগ নিতে হবে—প্রথমত. আন্তর্জাতিক কোম্পানি ও বিনিয়োগকারীদের আরো ভালভাবে জানতে হবে যে তাদের জন্য বাংলাদেশে কী ধরনের সুযোগ রয়েছে। দ্বিতীয়ত. বাংলাদেশকে অবশ্যই আমেরিকান ব্যবসাকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত থাকতে হবে। বেশির ভাগ আমেরিকান কোম্পানির প্রধান বাংলাদেশ সম্পর্কে একদমই সচেতন নন বলেও জানান পিটার হাস।

 

 

Bangladeshpost24.com

Previous articleরেমিট্যান্স কেনার ডলার রেট কমালো ব্যাংক
Next articleএখন থেকে ভারতে আইফোন বানাবে অ্যাপল