বাংলায় সংবাদ 🔊

অনলাইন ডেস্কঃ সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে ইতিহাস গড়ে দেশে ফিরেছেন বাংলাদেশের মেয়েরা। জয়ের ট্রফি হাতে নিয়ে বুধবার দুপুরে দেশে পৌঁছান সাবিনারা। বাংলাদেশ দলকে বহনকারী বিমান দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

বিজয়িনীরা বিমানবন্দরে পৌঁছার পর তাদের বর্ণিল সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এসময় বাফুফে কর্মকর্তারা তাদের মিষ্টিমুখ করান।

নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে নেপালকে ৩-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে দীর্ঘ ১৯ বছর পর বাংলাদেশকে শিরোপার আনন্দ এনে দিয়েছে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলটি। আর এই বাঘিনীদের সংবর্ধনা দিতে বিমানবন্দরেই আসবেন না বলে মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন।

অবশ্য না যাওয়ার জন্য যথেষ্ট যুক্তিও দিয়েছিলেন তিনি। শুধু কি তাই? সাফে মেয়েদের সমর্থন দিতে নেপালেও যাননি তিনি।

মঙ্গলবার সাংবাদিকদের দেয়া সাক্ষাৎকারে কাজী সালাউদ্দিন বলেন, ‘বিমানবন্দরে যাওয়া হবে না আমার। কারণ সেখানে গেলে আপনারা আমাকেই প্রশ্ন করবেন। ওরা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। আমি চাই ওরাই সবার কেন্দ্রে থাকুক।’

আর নেপালে না যাওয়া নিয়ে বাফুফে সভাপতির ভাষ্য, ‘কাঠমান্ডু গেলে ভালো না-ও হতে পারতো। আমি সেখানে উপস্থিত থাকলে হয়তো মেয়েরা চাপে পড়ে যেত। ওদের ওপর অতিরিক্ত প্রেসার না হওয়ার কারণেই আমি যাইনি। তবে সব খেলা দেখেছি।’

এছাড়া বাঘিনীদের জন্য প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে ছাদখোলা বাসও। এই বাসে করেই বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ভবনে যাবে দক্ষিণ এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন দলটি।

সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম সেমিফাইনালে ভুটানকে উড়িয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। স্বাগতিক নেপালকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো দেশকে শিরোপা স্বাদ এনে দিতে চেয়েছিলেন লাল-সবুজের প্রতিনিধিত্বকারীরা। সেই কথা রেখেছেন সাবিনারা। নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের মতো সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপা এনে দেন বাংলাদেশকে।

 

 

Bangladeshpost24.com

Previous articleপুলিশ নেতাকর্মীদের তালিকা করছে; অভিযোগ বিএনপির
Next articleরূপনা চাকমাকে বাড়ি তৈরি করে দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর