অনলাইন ডেস্কঃ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সাফ চ্যাম্পিয়ন নারী দলের দুই খেলোয়াড়ের টাকা চুরি ও লাগেজ ভাঙ্গার সত্যতা পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। ফুটবলারদের লাগেজ অক্ষত ও তালাবদ্ধ অবস্থায় বাফুফেকে বুঝিয়ে দিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

সিসিটিভি বিশ্লেষণের পর বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার (২২শে সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছে।

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কর্মকর্তা ইমরানকে অক্ষত অবস্থায় লাগেজ হস্তান্তর করা হয়। পাঁচটি ক্যামেরার ফুটেজ বিশ্লেষণ করে লাগেজ ভাঙ্গা বা চুরির কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

বিমানের ল্যান্ডিং এরিয়া, ব্যাগেজ মেকআপ এরিয়ায় ট্রলির আগমন, ব্যাগেজ মেকআপ এরিয়ার প্রথম লাগেজ ড্রপ, বেল্ট নম্বর ৮-এ লাগেজ আসা, ব্যাগেজ মেকআপ এরিয়ায় সর্বশেষ লাগেজ আসা- এই পাঁচটি এরিয়ার সিসিটিভ ফুটেজ বিশ্লেষণ করা হয়েছে বলেও জানান কামরুল ইসলাম।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা নিয়ে গতকাল দেশে ফেরা নারী ফুটবলারদের ব্যাগ থেকে খোয়া যায় টাকা ও মূল্যবান জিনিসপত্র। সেই সঙ্গে বেশ কয়েকজনের লাগেজের তালা ভাঙ্গা অবস্থায় পাওয়া গেছে বলেও অভিযোগ ওঠে। তাদের মধ্যে দুই খেলোয়াড়ের লাগেজ থেকে ডলার হারানোর অভিযোগ উঠেছে। বিমানবন্দর থেকে বাফুফে ভবনে এসে ব্যাগ খুলে তারা ডলার পাননি।

বাংলাদেশ জাতীয় নারী দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলেন, ‘কৃষ্ণা ও শামসুন্নাহারের ডলার হারিয়েছে বলে জানিয়েছে। কৃষ্ণার ৯০০ ডলার ও বাংলাদেশি ৫০ হাজার টাকা এবং শামসুন্নাহারের ৪০০ ডলার হারিয়েছে। তাদের ধারণা বাংলাদেশ বিমানবন্দর লাগেজ বেল্ট থেকে এটি হয়েছে।’

 

 

Bangladeshpost24.com

Previous articleই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির ফেসবুক পেজ পুনরায় চালু
Next article২০৩৩ সালের মধ্যে মানব মস্তিষ্ককে টপকাবে টেসলার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা