অনলাইন ডেস্কঃ বিএনপির হারিকেন মিছিল দেখে মনে হয় দলটির নির্বাচনী প্রতীক বদলে গেলো কিনা-এমন মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বলেন, জনগণ আশংকায় আছে হারিকেন কখন আবার পেট্রোলবোমা হয়ে যায়। কারণ তারা মানুষের ওপর পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ করেছে।
শনিবার দুপুরে নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।
বিএনপির সমালোচনায় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন আসলে বিএনপিকে নির্বাচন ভীতি পেয়ে বসেছে। কারণ ২০১৮ সালে সব দলের ঐক্য করে নির্বাচন করে তারা মাত্র পাঁচটি আসন পেয়েছিলো। এজন্য তারা নির্বাচনকে ভয় পায় এবং নির্বাচন নিয়ে নানা বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে। বিভ্রান্তি না ছড়িয়ে দলটিকে জনগণের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেন ড. হাছান মাহমুদ।
দেশের যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন আমরা চাই সব দলের অংশগ্রহণে একটি উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন হোক। নির্বাচনের ট্রেন কারো জন্য দাঁড়িয়ে থাকবে না। ২০১৪ এবং ২০১৮ সালেও নির্বাচনের ট্রেন কারো জন্য দাঁড়িয়ে ছিলো না। ২০২৪ সালের শুরুতেও নির্বাচনের ট্রেন কারো জন্য দাঁড়িয়ে থাকবে না।


তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন আগামী নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত। আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারা দেশে সুসংগঠিত। দলের তৃণমূল পর্যায়ের নেতৃত্বকে মূল্যায়ন করে তাদের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃত্বে বসানো হয়েছে। দলের কেউ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি। সারাদেশ যেভাবে সুসংগঠিত, আগামী নির্বাচনেও ইনশাল্লাহ জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা বিজয়ী হব। সে কারণে বিএনপি শংকিত।
জলঢাকা ডিগ্রী কলেজ মাঠে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ।

bangladeshpost24.com

Previous articleইয়াবার লাভের টাকায় সোনা
Next articleচীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ৬ আগস্ট ঢাকায় আসছেন