বাংলায় সংবাদ 🔊

অনলাইন ডেস্ক: দুই দিনের সফরে গতকাল ঢাকা আসে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। রবিবার সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। পরে সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন জানান, চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে। তার সফর রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বাংলাদেশ-চীন বর্তমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নেয়ার বার্তা নিয়ে এসেছিলেন ওয়াং ই।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন চীনা মন্ত্রী জানিয়েছেন, তাইওয়ানের বিষয়টি চীনের অভ্যন্তরীণ। পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে ৯৮ শতাংশ বাংলাদেশি পণ্য শুল্কমুক্ত কোটামুক্তভাবে চীনে প্রবেশ করবে। চীনে পড়তে থাকা বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা দেয়া হবে শিগগিরই। বাংলাদেশ-চীন দ্বিপাক্ষিক ফ্লাইট বাড়াতেও জোর দেয়া হয়েছে বৈঠকে। দুই দেশে সমন্বয়ে চলমান ২৭টি প্রকল্পের মধ্যে মাত্র ৮টি সম্পন্ন হয়েছে। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে চীন সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে বলেও জানান এ কে আব্দুল মোমেন। সম্প্রতি আসিয়ানের সফর নিয়ে মন্ত্রী বলেন আসিয়ানের বৈঠকেও প্রায় সবাই রোহিঙ্গাদের নিরাপদ ও মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবাসনের পক্ষে মত দিয়েছে।

এবারের সফরে চীনের সাথে ৪ টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে বাংলাদেশ।

 

Bangladeshpost24.com

Previous articleঅর্থনৈতিক উন্নয়নে এশিয়া একসঙ্গে কাজ করতে পারে: প্রধানমন্ত্রী
Next articleগ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়ার আভাস