অনলাইন ডেস্কঃ চলতি মৌসুমে কী দারুণ ছন্দেই না আছেন নেইমার। প্রতি ম্যাচেই গোল কিংবা অ্যাসিস্ট মিলছেই তার। যথারীতি এদিন আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচেও জ্বলে উঠলেন তিনি। তার সঙ্গে জ্বলে উঠলেন চলতি মৌসুমের শুরুতেই এভারটন থেকে টটেনহ্যাম হটস্পার্সে যোগ দেওয়া রিচার্লিসনও। তাতে ঘানার বিপক্ষে সহজ জয়ই মিলেছে সেলেসাওদের।

শুক্রবার রাতে ফ্রান্সের স্তাদে ওসেয়ানে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ঘানাকে ৩-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছে ব্রাজিল। ম্যাচে জোড়া গোল পেয়েছেন রিচার্লিসন। অপর গোলটি করেছেন পিএসজি ডিফেন্ডার মার্কুইনোস। দুটি গোলের যোগানদাতা নেইমার।

বিশ্বকাপের আগে নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়াই ছিল এ ম্যাচের মূল লক্ষ্য। কাজটা দারুণভাবেই করেছেন তিতের শিষ্যরা। ম্যাচের ৬৩ শতাংশ সময় বল দখলে ছিল তাদেরই। শট নেয় ২১টি। যার ৯টি ছিল লক্ষ্যে। অন্যদিকে ৭টি শট নিয়ে ১টি লক্ষ্যে রাখতে পারে ঘানা।

এদিন ম্যাচের প্রথমার্ধেই প্রায় এক চেটিয়া প্রাধান্য বিস্তার করে খেলে ব্রাজিল। গোল তিনটিও পায় তারা এ অর্ধেই। নবম মিনিটেই মার্কুইনোসের গোলে এগিয়ে যায় দলটি। কর্নার থেকে রাফিনহার নেওয়া শটে লাফিয়ে উঠে দারুণ এক হেডে বল জালে পাঠান এ পিএসজি ডিফেন্ডার।

২৮তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে ব্রাজিল। অসাধারণ এক ফিনিশিংয়ে লক্ষ্যভেদ করেন রিচার্লিসন। ডান প্রান্ত নেইমারের কাছ থেকে বল পেয়ে প্রথম পোস্ট ঘেঁষে দুর্দান্ত এক শটে বল জালে পাঠান এ টটেনহ্যাম ফরোয়ার্ড। ১১ মিনিট পর নিজেদের দ্বিতীয় গোল পান রিচার্লিসন। বাঁ প্রান্তে ডি-বক্সের সামান্য বাইরে ফ্রিকিক পায় ব্রাজিল। নেইমারের নেওয়া শটে এগিয়ে দিক বদলে জাল খুঁজে নেন রিচা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে অ্যাথলেতিক বিলবাও ফরোয়ার্ড ইনাকি উইলিয়ামসকে মাঠে নামান ঘানা কোচ। তাতে আক্রমণে ধার বাড়ে দলটির। বেশ কিছু আক্রমণ করলেও অবশ্য গোলের দেখা পায়নি তারা। অন্য দিকে দারুণ কিছু আক্রমণ করে গোলের দেখা পায়নি ব্রাজিলও। প্রথমার্ধের ফলাফলই হয় শেষ পর্যন্ত ম্যাচের পরিণতি।

 

 

Bangladeshpost24.com

Previous articleরাজনীতি করতে চান নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন
Next articleবেশিরভাগ যুদ্ধই মুসলিম বিশ্বে, একতার আহ্বান তুরস্কের