অনলাইন ডেস্কঃ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, রাষ্ট্রের সব অনুষদকে নিয়ে এবং রাষ্ট্রযন্ত্র ব্যবহার করে প্রধানমন্ত্রী যশোরে জনসভা করেছেন। তিনি নৌকার জন্য ভোট চেয়েছেন। কিন্তু দেশের মানুষ আব্বাসউদ্দীনের গান গাইতে শুরু করেছে, আগে জানলে তোর ভাঙা নৌকায় চড়তাম না।

আজ শনিবার কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে এ কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল অভিযোগ করেন, সরকার পরিকল্পিতভাবে দেশের গৌরবময় সব অর্জন ধ্বংস করেছে।

তিনি বলেন, ‘সরকার ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের মাধ্যমে আরেকটি প্রহসনমূলক নির্বাচনের পরিকল্পনা করছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দেওয়ার সেই পুরনো পথেই হাঁটছে সরকার।’

‘ঢাকার গণসমাবেশ বানচাল করতে সরকার মামলা ও বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে। কিন্তু এগুলো দিয়ে ঢাকার সমাবেশ থামাতে পারবেন না’, যোগ করেন তিনি।

দেশের অর্থনীতির করুণ চিত্র তুলে ধরে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘দেশের মানুষ গরিব হচ্ছে, কিন্তু আওয়ামী লীগের লোকজন ধনী হচ্ছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হবে না।’

 

Bangladeshpost24.com

Previous articleসরকার অর্থ লুটপাট করে দেশের অর্থনীতি ধ্বংস করেছেঃ খন্দকার মোশাররফ
Next articleনির্বাচন কমিশনের মতো ইভিএমেও আস্থা আনতে হবেঃ রাশিদা সুলতানা