চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় বৃদ্ধ দম্পতি খুনের ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। টাকা লুটের জন্য তাদেরকে শ্বাসরোধ এবং ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হত্যা করা হয় বলে জানা গেছে। গ্রেপ্তারদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী নজির উদ্দিনের ব্যবহৃত মোবাইল, অফিসিয়াল ব্যাগ ও স্ত্রী ফরিদা খাতুনের হ্যান্ডব্যাগ উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৯শে সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক প্রেস বিফিংয়ে এসব কথা জানানো হয়।

প্রেস বিফ্রিংয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তাররা হলেন, আলমডাঙ্গা উপজেলার আসাননগর গ্রামের মাঝেরপাড়ার বজলুর রহমানের ছেলে শাহাবুল হক (২৪), একই গ্রামের মাঝেরপাড়ার মাসুদ আলীর ছেলে বিদ্যুৎ আলী (২৩), শেষপাড়ার পিন্টু রহমানের ছেলে রাজিব হোসেন (২৫) ও স্কুলপাড়ার তাজ উদ্দিনের ছেলে শাকিল হোসেন (২১)।

তিনি আরও জানান, আসামিদের কাছে থাকা মোবাইল ফোনের ক্লু ধরে চুয়াডাঙ্গা ডিবিসহ আলমডাঙ্গার থানার একাধিক টিম একযোগে কার্যক্রম শুরু করে।

উল্লেখ্য, চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গায় ঘরের তালা ভেঙে এক দম্পতির মরদেহ উদ্ধার করা হয়। শনিবার (২৪শে সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে আলমডাঙ্গা পৌর এলাকার পুরাতন বাজার এলাকার বাসভবন থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতরা হলেন, নজির উদ্দিন (৭০) ও তার স্ত্রী ফরিদা খাতুন (৬০)। নজির উদ্দিন আলমডাঙ্গা পুরাতন বাজারের ধান চাল ও চাতাল ব্যবসায়ী ছিলেন।

 

 

Bangladeshpost24.com

Previous articleউন্নত দেশ হতে চাইলে কী চাই, জানাল বিশ্ব ব্যাংক
Next articleরাষ্ট্রপতির সঙ্গে আইজিপির বিদায়ী সাক্ষাৎ