অনলাইন ডেস্ক: ১০ শর্তে আগামী ২৬শে নভেম্বর কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বিএনপিকে বিভাগীয় সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। মঙ্গলবার কুমিল্লা জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের পক্ষে সিনিয়র সহকারী কমিশনার রাজিব চৌধুরীর সই করা অনুমতিপত্র প্রদান করা হয়।

বুধবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির সদস্য সচিব জসিম উদ্দিন এবং বিএনপির ত্রাণ ও পূণর্বাসন সম্পাদক হাজী আমিনুর রশিদ ইয়াছিন।

সমাবেশের শর্তগুলো হলো—দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও সামাজিক ধর্মীয় মূল্যবোধ, রাষ্ট্রীয় ভাবমূর্তি ও জাতীয় নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয় এমন বক্তব্য রাখা যাবে না; ব্যানার-ফেস্টুন ইত্যাদি ব্যবহার সীমিত করতে হবে; ব্যানার-ফেস্টুন, পতাকা স্ট্যান্ড হিসেবে কোনও লাঠি ব্যবহার করা যাবে না; সমাবেশ বিকাল সাড়ে ৪টার মধ্যে শেষ করতে হবে; মাইকের ব্যবহার সীমিত রাখতে হবে; উচ্চ শব্দে মাইক ব্যবহার করা যাবে না।

যানবাহন শহরের ভেতরে প্রবেশ করানো যাবে না; রাস্তা বন্ধ করে সমাবেশের কর্মসূচি পালন থেকে বিরত থাকতে হবে; মোটর শোভাযাত্রা ও মিছিল করা যাবে না; সমাবেশে অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে নেতাকর্মীদের আসা-যাওয়ার পথে কোনও প্রকার নাশকতাপূর্ণ কর্মকাণ্ড, তথা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে এমন কর্মকাণ্ড করা যাবে না।
সমাগত নেতাকর্মীরা যাতে কোনও প্রকার বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারেন, দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দ তথা আয়োজকদের সেই দায়িত্ব নিতে হবে এবং স্টেজ তৈরির সাথে যারা জড়িত তারা ছাড়া অন্য কেউ সমাবেশ শুরুর আগে সমাবেশস্থলে প্রবেশ কিংবা অবস্থান করতে পারবে না।
এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক (কুমিল্লা বিভাগ) মোস্তাক মিয়া জানান, পরিবেশ পরিস্থিতিতে অনেক কিছুই করতে হয়। এত শর্ত মেনে বিশাল একটি সমাবেশ করা সম্ভব না। তবে আমরা সুশৃঙ্খল ও শান্তিপূর্ণভাবে এ সমাবেশ সফল করতে আমরা সাংগঠনিকভাবে ব্যাপক পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।

বিএনপির ত্রাণ ও পূনর্বাসন সম্পাদক হাজী আমিনুর রশিদ ইয়াছিন বলেন, ‌শান্তিপূর্ণ সমাবেশ চাই। বিএনপি শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করবে এটাই সবশেষ কথা। আসার পথে আমাদের নেতাকর্মীদের যেন বাধা না দেওয়া হয়।

 

Bangladeshpost24.com 

Previous articleডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে মেট্রোরেলের উত্তরা-আগারগাঁও অংশ উদ্বোধন
Next articleযুক্তরাষ্ট্রে ওয়ালমার্টের স্টোরে গোলাগুলি, নিহত ১০