ছবি: সংগৃহীত



অনলাইন ডেস্কঃ ২০০২, ২০১০, ২০১৪, ২০১৮ শেষে এবার ২০২২ বিশ্বকাপেও প্রথম রাউন্ডেই বিদায় নেবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা? এমন একটা প্রশ্ন শেষ কিছু দিন ধরেই ঘুরে বেড়াচ্ছিল। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স যে একের পর এক চোটের মুখে পড়েই যাচ্ছিল কেবল! তবে যে দলে একজন কিলিয়ান এমবাপে আছেন, সে দলের শঙ্কা কীসের? তার জোড়া গোলেই ডেনমার্ককে ২-০ গোলে হারিয়েছে ফ্রান্স, কাতার বিশ্বকাপের প্রথম দল হিসেবে কেটে ফেলেছে শেষ ষোলোর টিকিটও।

স্টেডিয়াম ৯৭৪ এ আজ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ফ্রান্স প্রথমার্ধ থেকেই খেলেছে দাপুটে ফুটবল। সুযোগ তৈরি করেছে সবচেয়ে বেশি। সবচেয়ে বড় সুযোগটা এসেছিল এমবাপের কাছে। তবে উসমান দেম্বেলের দারুণ ক্রসটা তিনি সে যাত্রায় জালে জড়াতে পারেননি। ফলে বিরতির আগেও গোল পায়নি ফ্রান্স।

পেল এসে ৬১ মিনিটে। প্রথমার্ধের সবচেয়ে বড় সুযোগটা নষ্ট করা এমবাপেই পাইয়ে দিলেন। থিও এর্নান্দেজের সঙ্গে দারুণ বোঝাপড়া শেষে ঢুকলেন প্রতিপক্ষ বিপদসীমায়। ক্যাসপাস স্মেইকেলকে ফাঁকি দিয়ে ঠাণ্ডা মাথায় বলটা জড়ালেই জালে।

তবে ফ্রান্সের সে উৎসব টিকল মাত্র ৭ মিনিট। ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেনের নেওয়া কর্নার সাইড ফ্লিক করলেন ইওয়াখিম এন্ডারসেন, তাতে মাথা ছুঁইয়ে গোলটা করলেন আন্দ্রেস ক্রিশ্চেনসেন। ডেনমার্ক ফিরে এল সমতায়।

খেলাটাও যেন জমে উঠল। এর পরের দশ মিনিট খেলাটা হয়েছে এপাশে আর ওপাশে। একেবারে কেহ কারে নাহি ছাড়ে সমানে সমান! অবশেষে ফ্রান্সই সেই লড়াইয়ে জিতল। গোলটা করলেন সেই এমবাপেই! অ্যান্টোয়ান গ্রিজমানের দারুণ এক ক্রসে পা ছুঁইয়ে বলটা জড়ান জালে। সেই এক গোলই ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের জয়ের জন্য যথেষ্ট হয়ে গেছে। ২-১ গোলের জয় নিয়ে পৌঁছে গেছে শেষ ষোলোয়।


Bangladeshpost24.com

Previous articleইতালিতে ভূমিধসে নিখোঁজ ১৩
Next articleমেসি-জাদুতে বিশ্বকাপে টিকে রইল আর্জেন্টিনা