ছবি: সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্কঃ বিশ্বের শীর্ষ ধনী এবং টেসলা ও স্পেসএক্সের প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্কের কলেজ জীবনের কিছু মূল্যবান ছবি নিলামে উঠেছে। তার সাবেক প্রেমিকা জেনিফার গোয়েন সেই ছবি নিলামে তুলেছেন। জেনিফারের সঙ্গে ইলন মাস্কের কাটানো বেশকিছু মূহুর্তের ছবিও রয়েছে এতে। নিলামে তোলায় এরই মধ্যে সাড়া ফেলেছে তাদের সম্পর্কের সেসব স্মৃতিচিহ্ন।

জেনিফার গোয়েন যিনি বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি ইলন মাস্কের সঙ্গে সময় কাটিয়েছিলেন যখন তারা দুজনেই পেনসিলভানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করেন। বোস্টনভিত্তিক প্ল্যাটফর্ম আরআর অকশন তাদের ছবিসহ অন্যান্য স্মৃতিচিহ্ন নিলামে তুলেছে।

ইলন মাস্কের তারুণ্যে ভরা সেই মুহূর্তগুলোর এরকম ১৮টি ছবি, একটি হাতে লেখা জন্মদিনের কার্ড ও একটি সোনার নেকলেস নিলামে তোলা হয়েছে। সেই নেকলেস মাস্ক তার সাবেক প্রেমিকাকে উপহার দিয়েছিলেন।

জানা গেছে, রোববার রাত পর্যন্ত জন্মদিনের কার্ডটির সর্বোচ্চ দর উঠেছে, যদিও কার্ডটি ১০,০০০ ডলারে বিক্রি হবে বলে নিলামকারী প্রতিষ্ঠানটি আশা করছেন।

নিলামে তোলা আরেকটি আকর্ষণীয় জিনিস হচ্ছে, জাম্বিয়ার খনি থেকে তোলা পান্নাখচিত সোনার নেকলেস। যেটির মূল মালিক ছিলেন ইলন মাস্কের বাবা ইরল।

জেনিফার জানান, ‘১৯৯৪ সালে ক্রিসমাসের ছুটিতে যখন তারা দুজনে টরন্টোতে ইলন মাস্কের মায়ের সঙ্গে দেখা করতে যান, তখন তাকে ‘ভালোবাসা, ভালোবাসা, ভালোবাসা’-লেখা ছোট্ট চিরকুটসহ এই নেকলেসটি উপহার দেন তিনি’।

ছবির মধ্যে আরও রয়েছে, বন্ধুদের সঙ্গে ইলন মাস্কের আড্ডা দেওয়া, ডরমিটরির ছবি এবং গোয়েনের সঙ্গে তোলা কিছু ছবিও।

ছবি: সংগৃহীত

দ্য ইন্ডিপেনডেন্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গোয়েন, যিনি ১৯৯৪ সালে মাস্কের সঙ্গে ডেটিং করেছিলেন, তার সৎ ছেলের কলেজের টিউশন ফির অর্থ সংগ্রহের জন্য আইটেমগুলো বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

ইনসাইডার এডিশনের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে গোয়েন বলেছেন যে টেসলা ইনকর্পোরেটেডের মালিক প্রায় ৩০ বছর আগে তার সঙ্গে সময় কাটানোর সময় বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরি কল্পনা করেছিলেন।

বিখ্যাত উদ্যোক্তাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত কোনো আইটেম আরআর অকশন কোম্পানি প্রথম নিলামে তুলছে এমনটি নয়। এর আগে কোম্পানিটি স্টিভ জবসের প্রথম অ্যাপল-১ প্রোটোটাইপের জন্য ৬ লাখ ৮০ হাজার ডলার হাঁকে।

সুত্র: দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট

Bangladeshpost24.com

Previous articleপরমাণু চুক্তি নিয়ে আলোচনায় জার্মানি সফরে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী
Next articleলন্ডনে আনুশকাকে সময় দিচ্ছেন বিরাট