ছবি: সংগৃহীত




অনলাইন ডেস্কঃ চলতি বছরের ৩১ জুলাই মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দেওয়া নির্দেশে আফগানিস্তানে ড্রোন অভিযানে আল-কায়েদা প্রধান আয়মান আল-জাওয়াহিরি নিহত হয়। এই অভিযান নিয়ে নতুন করে  চাঞ্চল্যকর দাবি করেছে আফগানিস্তানের তালেবান সরকার। তালেবান দাবি করেছে, পাকিস্তান আফগানিস্তানে মার্কিন বিমান হামলার সায় দেওয়ার জন্য বিপুল পরিমাণ অর্থ পেয়েছে। তাদের দাবির পক্ষে যথেষ্ট পরিমাণ প্রমাণও রয়েছে বলে জানায় তালেবানরা।

তালেবান দাবি করেছে, জাওয়াহিরিকে হত্যা করতে আফগানিস্তানে আক্রমণকারী মার্কিন ড্রোনগুলো পাকিস্তানের আকাশসীমা দিয়ে প্রবেশ করেছিল। গতকাল বুধবার  বিশ্ব পর্যটন দিবসের স্মরণে একটি সভায় ভাষণ দিয়েছেন তালেবান নেতৃত্বাধীন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাজনৈতিক উপমন্ত্রী শের মোহাম্মদ আব্বাস স্তানেকজাই।

তিনি দাবি করেছেন, পাকিস্তান তার আকাশসীমা ব্যবহার করতে দেওয়ার মার্কিন দাবি মেনে নিতে মিলিয়ন ডলার পেয়েছে। খামা প্রেসের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে। তিনি আরও বলেছেন, প্রমাণাদি নিশ্চিত করে কিভাবে পাকিস্তান যুক্তরাষ্ট্রকে তাদের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে।

পাকিস্তান বর্তমানে একটি গুরুতর অর্থনৈতিক সঙ্কটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। আব্বাস স্তানেকজাই বলেন, ইসলামাবাদে পরিস্থিতি খারাপ থাকলেও তার অর্থনৈতিক পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে আফগানিস্তানকে ব্যবহার করা উচিত নয়।

এর আগে তালেবান-নিযুক্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোল্লা ইয়াকুব মুজাহিদ, আফগানিস্তানের আকাশসীমা এবং ভূখণ্ডে মার্কিন ড্রোন ব্যবহার করার অনুমতি দেওয়ার জন্য পাকিস্তানকে অভিযুক্ত করেন।

Bangladeshpost24.com        

Previous articleএকটু কষ্ট হবে, কম খাবঃ খাদ্যমন্ত্রী
Next articleহিলি স্থলবন্দরে ৮ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ