Home বাণিজ্য আবাসিকে গ্যাসের দাম বেড়ে ১০৮০

আবাসিকে গ্যাসের দাম বেড়ে ১০৮০

গ্যাস সংকট

বাংলাদেশ পোষ্ট ২৪ ডটকম: ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের দর বাড়ল ২২.৭৮ ভাগ। সবচেয়ে বেশি দর বেড়েছে সার কারখানায়।

গ্যাসের দর বেড়েছে প্রিপেইড মিটারেও, তবে দাম বাড়েনি সিএনজিচালিত গাড়ির গ্যাসের।

ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে রোববার বেলা তিনটার দিকে এ দর ঘোষণা করে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)।

আবাসিকে গ্যাসের ক্ষেত্রে এক চুলার জন্য মাসিক অর্থ ৯৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৯৯০ টাকা করা হয়েছে। দুই চুলার দর ৯৭৫ টাকা থেকে ১ হাজার ৮০ টাকা করা হয়েছে।

গাড়িতে ব্যবহৃত সিএনজির দর বাড়ানো হয়নি।

প্রিপেইড মিটার গ্রাহকদের খরচ বেড়েছে ৪০ থেকে ৫০ শতাংশ। প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দর ১২ টাকা ৬০ পয়সা থেকে বেড়ে ১৮ টাকার বেশি হয়েছে।

ক্যাপটিভ বিদ্যুতে দর বেড়েছে সাড়ে ১৫ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি বেড়েছে সার কারখানার গ্যাসের দর। এ খাতে দর বেড়েছে ২৫৯ শতাংশ। এখানে ঘনমিটার গ্যাস ৪ টাকা ৪৫ পয়সা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ১৬ টাকা।

নতুন দর ঘোষণা করেন বিইআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আবু ফারুক। অন্যদের মধ্য অংশ নেন কমিশনের সদস্য মকবুল ই ইলাহী চৌধুরী, বজলুর রহমান ও কামরুজ্জামান।

বৃহৎ শিল্পে ১১ দশমিক ৯৬ শতাংশ, বিদ্যুতে ১২ শতাংশ, ক্যাপটিভে ১৫ দশমিক ৫ শতাংশ দাম বাড়ানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দাম (সরকারি, আইপিপি ও রেন্টাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র) ৫ টাকা ২ পয়সা, ক্যাপটিভের (ক্যাপটিভ পাওয়ার প্ল্যান্ট, ক্ষুদ্র বিদ্যুৎ কেন্দ্র এবং বাণিজ্যিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র) দাম ১৬ টাকা, সারে ১৬, শিল্পখাতের মধ্যে বড় শিল্পে ১১ টাকা ৯৮ পয়সা, মাঝারি শিল্পে ১১ টাকা ৭৮ পয়সা এবং ক্ষুদ্র, কুটির ও অন্যান্য শিল্পে ১০ টাকা ৭৮ পয়সা করা হয়েছে।

এ ছাড়া চা শিল্পে ১১ টাকা ৯৩ পয়সা, বাণিজ্যিক হোটেল, রেস্টুরেন্ট এবং অন্যান্য খাতে ২৬ টাকা ৬৪ পয়সা করা হয়েছে। তবে সিএনজি আগের মতোই অপরিবর্তিত ৪৩ টাকায় রাখা হয়েছে।

bangladeshpost24.com

Previous articleইতিবাচক ধারায় ছুটবে পুঁজিবাজার
Next articleখেলাপি ঋণ বেড়ে ১০ হাজার কোটি টাকা